1. sm.khakon@gmail.com : bkantho :
ঢাকার ৭ কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবেন ২১,৫১৩ শিক্ষার্থী - বাংলা কণ্ঠ নিউজ
January 29, 2023, 3:01 pm

ঢাকার ৭ কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবেন ২১,৫১৩ শিক্ষার্থী

বাংলা কণ্ঠ ডেস্কঃ
ঢাকার ৭ কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবেন ২১,৫১৩ শিক্ষার্থী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অধিভুক্ত রাজধানীর সরকারি সাত কলেজে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ বছর বিজ্ঞান, বাণিজ্য এবং কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদে ভর্তির সুযোগ পাবে ২১ হাজার ৫১৩ জন শিক্ষার্থী।

গত শুক্রবার (১৫ জুলাই) থেকে ভর্তি আবেদনের জন্য ওয়েবসাইট চালু হয়। আবেদন প্রক্রিয়া চলবে আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত।

সাত কলেজের কলেজভিত্তিক আসন সংখ্যা। এছাড়াও তিন অনুষদের সংশ্লিষ্ট বিভাগসমূহের মোট আসন সংখ্যা ও কলেজভিত্তিক আসন সংখ্যা নিয়ে আজকের প্রতিবেদন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রকাশিত ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাবি অধিভুক্ত সরকারি সাত কলেজের বিজ্ঞান, বাণিজ্য, কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের সংশ্লিষ্ট বিভাগসমূহে ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ভর্তির জন্য ২০২১ সালে উচ্চ মাধ্যমিক বা সমমান পর্যায়ে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে ইডেন মহিলা কলেজ ও বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজের আসনসমূহ শুধুমাত্র ছাত্রীদের জন্য ও ঢাকা কলেজের আসনসমূহ শুধু ছাত্রদের জন্য সংরক্ষিত থাকবে।

এছাড়া সরকারি তিতুমীর কলেজ, কবি নজরুল সরকারি কলেজ, সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজ, ও সরকারি বাঙলা কলেজে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি হতে পারবেন। উক্ত কলেজগুলোর বিজ্ঞান ইউনিটের শাখাসমূহের ভর্তি কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদ, বাণিজ্য ইউনিটের শাখাসমূহের ভর্তি কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাণিজ্য অনুষদ এবং কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটের শাখাসমূহের ভর্তি কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদের মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে।

তবে ডিগ্রিসমূহের সনদপত্র প্রদান করা ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্য কোনো সুবিধা ভর্তিকৃত শিক্ষার্থীদের জন্য প্রযোজ্য নয় বলেও প্রতিবারের মতো এবারও জানানো হয়েছে।

সাত কলেজে ভর্তি আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা :
প্রার্থীকে ২০১৬ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত মাধ্যমিক বা সমমান ও ২০২১ সালের বাংলাদেশের যেকোনো শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞান শাখায় অথবা গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিষয়ে উচ্চ মাধ্যমিক অথবা মাদরাসা বোর্ডের বিজ্ঞান শাখায় আলিম অথবা কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের বিজ্ঞানের সংশ্লিষ্ট বিষয় অথবা বিজ্ঞান শাখায় IAL/A-Level অথবা সমমানের বিদেশি ডিগ্রিধারী হতে হবে।

ইউনিটভিত্তিক আবেদনের যোগ্যতা :

১. বিজ্ঞান ইউনিটে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ সাত (৭.০০) হতে হবে।

২. বাণিজ্য ইউনিটে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে চতুর্থ বিষয়সহ জিপিএ ছয় দশমিক ৫০ (৬.৫০) হতে হবে।

৩. কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ ছয় (৬.০০) হতে হবে।

পরীক্ষার তারিখ :

১. বিজ্ঞান অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ১২ আগস্ট।
২. কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা ১৯ আগস্ট।
৩. বাণিজ্য অনুষদের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ২৬ আগস্ট।

ভর্তি পরীক্ষার নম্বর ও পাস নম্বর :

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ১২০ নম্বরের ভর্তি পরীক্ষায় পাস নম্বর ৪০ শতাংশ, অর্থাৎ ৪৮।

ভর্তি পরীক্ষার ফি ও ফি জমাদান প্রক্রিয়া :

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষার আবেদন ফি ৬০০ টাকা। ফি জমা দেয়া যাবে মোবাইল ব্যাংকিং, ইন্টারনেট ব্যাংকিং, ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ডসহ সোনালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক, জনতা ব্যাংক ও রুপালী ব্যাংকের মাধ্যমে।

ইউনিট, কলেজ ও বিভাগভিত্তিক আসন সংখ্যা :

সাত কলেজে এবার মোট আসন সংখ্যা ২১ হাজার ৫১৩টি। গত বছর মোট আসন ছিল ২৬ হাজার ১৬০টি। ওই হিসাবে এবার চার হাজার ৬৪৭টি আসন কমেছে।

এ বছর সাত কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে কলেজ ও বিষয়ভিত্তিক আসন সংখ্যা ছয় হাজার ৫০০টি। এরমধ্যে-

১. ঢাকা কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ১০৯০টি। এরমধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ১২০টি, রসায়ন বিভাগে ১২০টি, গণিত বিভাগে ২১০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ১২৫টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ১২৫টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ১২৫টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ১২৫টি ও পরিসংখ্যান বিভাগে আসন রয়েছে ১৪০টি।

২. কবি নজরুল সরকারি কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৬৩০টি। এর মধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ১০০টি, রসায়ন বিভাগে ১০০টি, গণিত বিভাগে ১০০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ১০০টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ১০০টি, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগে রয়েছে ১৩০টি আসন।

৩. সরকারি বাঙলা কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৭১৫টি। এর মধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ১০৫টি, রসায়ন বিভাগে ১৩০টি, গণিত বিভাগে ১৮০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ১০৫টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ১২০টি ও মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগে ৭৫টি আসন রয়েছে।

৪. সরকারি তিতুমীর কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা এক হাজার ৫১০টি। এরমধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ২৫০টি, রসায়ন বিভাগে ২৫০টি, গণিত বিভাগে ৩০০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ২৫০টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ২৫০টি, পরিসংখ্যান বিভাগে ৭০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ৭০টি ও মনোবিজ্ঞান বিভাগে ৭০টি আসন রয়েছে।

৫. সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৭৪০টি। এরমধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ১০০টি, রসায়ন বিভাগে ১২০টি, গণিত বিভাগে ১২০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ১০০টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ১০০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ১০০টি ও মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগে ১০০টি আসন রয়েছে।

৬. ইডেন মহিলা কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা এক হাজার ২২৫টি। এরমধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ১২৫টি, রসায়ন বিভাগে ১২৫টি, গণিত বিভাগে ২০০টি, উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগে ১৫০টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ১৫০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ১৬৫টি, পরিসংখ্যান বিভাগে ৫০টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ১৪০টি ও গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে ১২০টি আসন রয়েছে।

৭. বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজে বিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন ৫৯০টি। এরমধ্যে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগে ৬৫টি, রসায়ন বিভাগে ৮৫টি, গণিত বিভাগে ৬৫টি, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগে ৫৫টি, প্রাণিবিদ্যা বিভাগে ৮০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ৮০টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ৮০টি ও গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে আসন রয়েছে ৮০টি।

সাত কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা পাঁচ হাজার ৩১০টি। যারমধ্যে—

১. ঢাকা কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৬০০টি। এর মধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৩০০টি ও হিসাববিজ্ঞান বিভাগে ৩০০টি আসন রয়েছে।

২. ইডেন মহিলা কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা এক হাজার ৫৫টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৩২০টি, হিসাববিজ্ঞান বিভাগে ৩৩০টি, মার্কেটিং বিভাগে ২১৫টি ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে ১৯০টি আসন রয়েছে।

৩. সরকারি তিতুমীর কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ১৪৬৫টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৪৬২টি, হিসাববিজ্ঞান বিভাগে ৪৭৮টি, মার্কেটিং বিভাগে ২৭০টি ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে ২৫৫টি আসন রয়েছে।

৪. সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৪০০টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ২০০টি ও হিসাববিজ্ঞান ২০০টি আসন রয়েছে।

৫. কবি নজরুল সরকারি কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৭০০টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৩০০টি, হিসাববিজ্ঞান বিভাগে ৩০০টি, মার্কেটিং বিভাগে ৫০টি ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে ৫০টি আসন রয়েছে।

৬. বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ১৩০টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৬৫টি ও হিসাববিজ্ঞান বিভাগে রয়েছে ৬৫ আসন।

৭. সরকারি বাঙলা কলেজে বাণিজ্য ইউনিটের বিভাগগুলোতে মোট আসন সংখ্যা ৯৬০টি। এরমধ্যে ব্যবস্থাপনা বিভাগে ৩৬০টি, হিসাববিজ্ঞান বিভাগে ৩৬০টি, মার্কেটিং বিভাগে ১২০টি ও ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগে আসন রয়েছে ১২০টি।

কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটের বিভাগগুলোতে সাত কলেজে মোট আসন সংখ্যা ৯ হাজার ৭০৩টি। যারমধ্যে-

১. ঢাকা কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটের মোট আসন সংখ্যা এক হাজার ৫৪২টি। যেখানে বাংলা বিভাগে ১৬০টি, ইংরেজি বিভাগে ১৯২টি, ইতিহাস বিভাগে ১৮০টি, দর্শন বিভাগে ১৪৪টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ১০৪টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ৮০টি, অর্থনীতি বিভাগে ১৮৮টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ২১২টি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ২০০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ৩২টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ৩২টি, পরিসংখ্যান বিভাগে ৭টি ও গণিত বিভাগে ১১টি আসন রয়েছে।

২. ইডেন মহিলা কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন সংখ্যা দু’হাজার ১০৪টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ১৮৪টি, ইংরেজি বিভাগে ২৪০টি, ইতিহাস বিভাগে ১৯২টি, দর্শন বিভাগে ১৫২টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ১৯২টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ১১২টি, অর্থনীতি বিভাগে ২৩২টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ২৪০টি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ২২৪টি, সমাজকর্ম বিভাগে ২১৬টি, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগে ৪২টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ৩৫টি, পরিসংখ্যান বিভাগে ৩টি, গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে ৩০টি ও গণিত বিভাগে ১০টি আসন রয়েছে।

৩. সরকারি তিতুমীর কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন দু’হাজার ২৮৭টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ২৪৮টি, ইংরেজি বিভাগে ২৯২টি, ইতিহাস বিভাগে ১৬৮টি, দর্শন বিভাগে ২০০টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ২০৮টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ১১৬টি, অর্থনীতি বিভাগে ৩০৪টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ৩২০টি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ১৮৮টি, সমাজকর্ম বিভাগে ১৮৮টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ১৮টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ১৮টি, পরিসংখ্যান বিভাগে চারটি ও গণিত বিভাগে ১৫টি আসন রয়েছে।

৪. কবি নজরুল সরকারি কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন রয়েছে এক হাজার ১৩৪টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ১২০টি, ইংরেজি বিভাগে ১৬০টি, ইতিহাস বিভাগে ১২০টি, দর্শন বিভাগে ৯৬টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ১২০টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ১৬০টি, অর্থনীতি বিভাগে ১২০টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ১২০টি, আরবি বিভাগে ৮০টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ৩৩টি ও গণিত বিভাগে পাঁচটি আসন রয়েছে।

৫. সরকারি শহীদ সোহরাওয়ার্দী কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন সংখ্যা ৮৫৫টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ৮৮টি, ইংরেজি বিভাগে ৮৮টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ ৯৬টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ৮০টি, অর্থনীতি বিভাগে ১২০টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ১৩৬টি, সমাজকর্ম বিভাগে ১৩৬টি, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগে ২৫টি ও গণিত বিভাগে ছয়টি আসন রয়েছে।

৬. বেগম বদরুন্নেসা সরকারি মহিলা কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন রয়েছে ৭৬৪টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ৮০টি, ইংরেজি বিভাগে ৬৪টি, ইতিহাস বিভাগে ৪০টি, দর্শন বিভাগে ৪৮টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ৪৮টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ৪০টি, অর্থনীতি বিভাগে ১৩২টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ৬৮টি, সমাজবিজ্ঞান বিভাগে ৭২টি, সমাজকর্ম বিভাগ ১০৮টি, ভূগোল ও পরিবেশ বিভাগে ২০টি, মনোবিজ্ঞান বিভাগে ২০টি, গার্হস্থ্য অর্থনীতি বিভাগে ২০টি ও গণিত বিভাগে চারটি আসন রয়েছে।

৭. সরকারি বাঙলা কলেজে কলা ও সমাজবিজ্ঞান ইউনিটে মোট আসন সংখ্যা ১০১৭টি। এরমধ্যে বাংলা বিভাগে ১৭৬টি, ইংরেজি বিভাগে ১৪৪টি, ইতিহাস বিভাগে ৯৬টি, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগে ৮৮টি, ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে ৮০টি, অর্থনীতি বিভাগে ১১২টি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগে ১৯৬টি, সমাজকর্ম বিভাগে ১১৬টি ও গণিত বিভাগে ৯টি আসন রয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি শিক্ষার মানোন্নয়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে রাজধানীর সাতটি সরকারি কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করা হয়। এরপর থেকে এসব কলেজের অ্যাকাডেমিক সব কার্যক্রম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিচালিত হয়ে আসছে।

সামাজিক মিডিয়ায় শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর
Developer By Zorex Zira

Designed by: Sylhet Host BD