বানিয়াচংয়ে ডাকাত ও গ্রামবাসী সংঘর্ষে আহত ২০ ॥ আটক ১৮

হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার কাগাপাশা ইউনিয়নের উমরপুর গ্রামে ডাকাত ও গ্রামবাসীর সংঘর্ষে ২০ জন আহত হয়েছে। পরে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় পুলিশ ১৮ ডাকাত ও তাদের সহযোগিকে গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার রাতে এ ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, কাগাপাশা ইউনিয়নের উমরপুর গ্রামের দোস্ত মোহাম্মদের পুত্র রমজান মিয়া এলাকায় ডাকাত সর্দার হিসাবে পরিচিতি। তার আত্মীয়-স্বজনকে নিয়ে সে একটি ডাকাতদল গঠন করে। সম্প্রতি গ্রামবাসী রমজান মিয়া ও তার আত্মীয়-স্বজনকে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করে।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রমজান মিয়ার নেতৃত্বে ডাকাতদল গ্রামে প্রবেশ করতে চাইলে গ্রামবাসী তাদেরকে প্রতিহত করার চেষ্টা করে। এ নিয়ে ডাকাত ও গ্রামবাসী সংঘর্ষে লিপ্ত হলে উভয় পক্ষের ২০ জন আহত হয়। গুরুতর আহত অবস্থায় ১০ জনকে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
খবর পেয়ে বানিয়াচং থানার এসআই ওমর ফারুকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় ১২ জন ডাকাত এবং তাদের ৬ সহযোগিকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।
কাগাপাশা ইউপি চেয়ারম্যান এরশাদ আলী জানান, রমজান মিয়ার পরিবার এলাকার চিহ্নিত ডাকাত পরিবার। এলাকাবাসী তাদেরকে গ্রাম থেকে বিতাড়িত করে। ২ মাস পূর্বে পুলিশ ও জনপ্রতিনিধিদের অংশগ্রহণে এক সভা থেকে রমজান মিয়াকে আত্মসমর্পণ করার আহবান জানালে তাতে সে সাড়া দেয়নি। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তারা গ্রামে প্রবেশ করতে চাইলে গ্রামবাসী বাধা দেয়। এ নিয়ে ডাকাত ও গ্রামবাসী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
বানিয়াচং সার্কেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গ্রেপ্তারকৃত ১৮ জনের মাঝে ১২ জন ডাকাত এবং অন্যরা তাদের আত্মীয়-স্বজন।

এসএম সরুজ আলী হবিগঞ্জ

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *