1. sm.khakon@gmail.com : bkantho :
লন্ডনে হাউজ অব কমন্সে হলি (দোলযাত্রা) ও গৌড় পূর্ণিমা উদযাপন - বাংলা কণ্ঠ নিউজ
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩০ অপরাহ্ন

লন্ডনে হাউজ অব কমন্সে হলি (দোলযাত্রা) ও গৌড় পূর্ণিমা উদযাপন

মতিয়ার চৌধুরী, লন্ডন
  • শনিবার, ২৩ মার্চ, ২০২৪
  • ৭২ বার পড়া হয়েছে
লন্ডনে হাউজ অব কমন্সে হলি (দোলযাত্রা) ও গৌড় পূর্ণিমা উদযাপন

গ্রেট ব্রিটেনের    ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো ব্রিটিশ পার্লামেন্ট হাউজ অব কমন্সে হলি (দোলযাত্রা)  ও গৌড়পূর্ণিমা  উদযাপিত হল। ২১ মার্চ ২০২৪ বৃহস্প্রতিবার লন্ডন সময় দুপুর দুই ঘটিকা থেকে বিকেল পাঁচটা  পর্জন্ত  হাউজ অব কমন্সের কমিটি রুম ১৪তে ইষ্টহ্যাম আসনের লেবার দলীয় এমপি স্যার ষ্টীফেন টিমস ও ইলিং-সাউথ হল আসনের লেবার দলীয়  এমপি বীরেন্দ্র শর্মার যৌথ পন্সরশীফ ও পৃষ্টপোষকতায় বাংলাদেশ হিন্দু অ্যাসোসিয়েশন ইউকে সনাতন ধর্মীয় রীতি অনুসারে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক  অনুষ্টানের আয়োজন করে।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য-আ্যায়ারল্যান্ড ও লাইব্রেরীয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার এইচ.ই. মিস সাইদা মুনা তাসনিম। বাংলাদেশ হিন্দু অ্যাসোসিয়েশন ইউকের প্রেসিডেন্ট প্রশান্ত দত্ত পুরকায়স্থ বিইএম এর সভাপতিতেত্ব ও সংগঠনের সেক্রেটারী সুজিত কুমার চৌধুরীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সংগঠনের গোড়াপত্তন ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা ও আদর্শ উদ্দেশ্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র লিগ্যাল কাউন্সেল রাজেন পাল এবং তৃতীয় প্রজন্মের ব্রিটিশ বাঙ্গালী ইউ-সি-এল এর শিক্ষার্থী মৌলিকা সোম ও কেমব্রীজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সুমেদ দেবারা। অনুষ্টানের শুরুতে একটি ব্যাতিক্রমী ডকুমেন্টারী  প্রদর্শন করা হয়।  সংগঠনের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মহালয়া শীল ও কৃষ্ন  শীল সাংস্কৃতিক অনুষ্টান পরিচালনা করেন।

 অনুষ্টানের হোষ্ট বীরেন্দ্র শর্মা এমপি বলেন হিন্দু ধর্ম সেবা শান্তি ও সম্পৃতিতে বিশ্বাসী। তিনি বলেন  ভারতের পাঞ্জাব থেকে একজন অভিাসী হিসেবে ব্রিটেনে আসেন এদেশে আসার পর প্রথমে একজন বাস কন্ট্রাকটর হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি বলেন বর্তমানে গ্রেট ব্রিটেনে তিন মিলিয়নেরও বেশী সনাতন ধর্মের অনুসারী রয়েছেন, সকলেই বাংলাদেশ-পাকিস্তান ও ভারত থেকে আগত। তিনি তরুন-তরুনীদের সাহসের সাথে এগুনোর আহবান জানান। তিনি আরো বলেন এই দেশ আমাদের সকলের, সকল ধর্মের সামান অধিকার  ব্রিটিশ সমাজ সম্পৃতিকে বিশ্বাসী আমাদের সকলকে সাস্প্রদায়িকতার উর্ধে থাকতে হবে।

স্যার ষ্টীফেন টিমস এমপি বলেন ভালবাসা ও শান্তির উৎসব হলি আয়োজনে অংশ নিতে পেরে নিজকে  গৌরবান্বিত মনে করছি। তিনি তার পক্ষ থেকে সব ধরেনের সহযোগীতার আশ্বাস প্রদান করেন।

হাইকমিশনার সাইদা মুনা তাসনিম বলেন হাউজ অব কমন্সে  বাংলাদেশের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি চর্চা এবং নবপ্রজন্মের  উচ্চমানের উপস্থাপনা সত্যিই একটি ব্যাতিক্রমী অনুষ্টান । তিনি বলেন জাতির জনক বঙ্গ বন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের স্বপ্ন  দেখতেন তার প্রতিষ্ঠিত বাংলাদেশ তারই কন্যা শেখ  হাসিনার হাত ধরে এগিয়ে যাচ্ছে। বর্তমান সরকার সকল ধর্মের সমঅধিকার প্রতিষ্টা করেছে। আমাদের স্বাধীনতার মূল মন্ত্র ছিল চারটি।

সংগঠনের প্রেসিডেন্ট প্রশান্ত দত্ত পুরকায়স্থ বিইএম  উপস্থিত সুধী ও আগত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে বলেন ২০০১ সালে বাংলাদেশ হাইকমিশনের পরিচয় পর্বের সূত্রধরে বাংলাদেশ হিন্দু অ্যসোসিয়েশন আজ ২৩ বছর পর হাউজ অব কমন্সে বাংলাদেশের হাইকমিশনার ও ব্রিটিশ এমপিদের কাছ থেকে যথাযত স্বীকৃতি  পেলো। তিনি বলেন  আমাদের শেকড়ের সাথে নবপ্রজন্মের যোগসূত্র স্থাপনে নিরলস ভাবে কাজ করছে বাংলাদেশ হিন্দু অ্যাসোসিয়েশন ইউকে। তিনি আগত সকলকে সংগঠনের পক্ষ  থেকে ধন্যবাদ জানান। ব্রিটেনের বিভিন্ন শহর থেকে বিপুল সংখ্যক ব্রিটিশ বাংলাদেশী এই হলি উৎসবে অংশ নেন।

সামাজিক মিডিয়ায় শেয়ার করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো খবর
Developer By Zorex Zira

Designed by: Sylhet Host BD