বানিয়াচঙ্গে কমিউনিটি পুলিশিং ও ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত

বানিয়াচংয়ে ওপেন হাউজ ডে ও কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বানিয়াচং থানা চত্ত্বরে উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ইউনিট আয়োজিত বিশাল সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ইউনিটের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আমির হোসেন মাস্টার। সভার শুরুতে পবিত্র কালামে পাক থেকে তেলায়াত করেন মাওলানা আতাউর রহমান, গীতা পাঠ করেন বাদল ভট্টাচার্য্য। কমিউনিটি পুলিশিং এর সম্পাদক বিপূল ভূষন রায় ও অফিসার ইনচার্জ মোজাম্মেল হক এর যৌথ সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হবিগঞ্জ-২ আসনের এমপি আলহাজ্ব এডঃ আব্দুল মজিদ খান। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মোঃ কামরুল আহসান, বিপিএম ও হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা ইমাম সমিতির সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমান, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ সমাছুল হক। এতে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ বশির আহমেদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন খানসহ উপজেলার সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মেম্বার, স্কুল, কলেজ এর প্রতিষ্ঠান প্রধান, সাংবাদিক ও বিভিন্ন শ্রেণির পেশার নেতবৃন্দ।
প্রধান অতিথির বক্তব্য আব্দুল মজিদ খান এমপি বলেন, সাধারণ জনগণ যেন নির্ভয়ে পুলিশের কাছে এসে তাদের অভিযোগ অনুযোগ দিতে পারে, পুলিশকে সেই মানসিকতা নিয়ে কাজ করতে হবে, আইনের বাণী যেন নিভৃত্তে না কাঁেদ সেই দিকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উদ্দেশ্যে বলেন, অপরাধী যে দলেরই হউক না কেন তাকে নূন্যতম ছাড় না দিয়ে আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নিতে হবে।
বিশেষ অতিথি বক্তব্যে সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মোঃ কামরুল আহসান, বিপিএম বলেন, মাদককে না বলুন, মাদকমুক্ত সমাজ গড়ে তুলুন। তিনি বলেন, সমাজ থেকে মাদক নির্মূল করতে পুলিশ জিহাদ ঘোষণা করেছে। মাদক এর সাথে যদি কোন পুলিশ সদস্যের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায় তাৎক্ষনিক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা থাকলে সমাজ থেকে সকল প্রকার অপরাধ নির্মূল করা সম্ভব বলেও তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র তার বক্তব্যে বলেন, কোন কিছুই পুলিশের একার পক্ষে করা সম্ভব নয়, ‘পুলিশই জনতা-জনতাই পুলিশ’ এই স্লোগান ধারণ করে কমিউনিটি পুলিশিং এর কার্যক্রম বেগবান করতে হবে। কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রম ব্যাপকভাবে চালু হলে অবশ্যই জনতা এর সুফল পাবে। এর মাধ্যমে পুলিশ ও জনগণের মধ্যে যে দূরত্ব থাকে তা অনেকটাই কমে আসবে, কেননা কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমে জনগণের অংশীদারিত্ব থাকে। তিনি আরো বলেন, একজন পুলিশ সুপার হিসেবে আমি আপনাদের বলতে চাই, কোন একটি মানুষও যেন তার আইনী সেবা থেকে বঞ্চিত না হয়, সেজন্য পুলিশ সুপারের দরজা সব সময় আপনাদের জন্য খোলা রয়েছে। জঙ্গি কার্যক্রম থেকে শুরু করে সমাজের যে কোন অপরাধমূলক কর্মকান্ড সম্পর্কে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করবেন, পুলিশ আপনাদের পাশে থাকবে। মদ, গাঁজাসহ অপরাধমূলক যে কোন কর্মকান্ডে পুলিশের কোন অনিয়ম থাকলে তাও আমাকে জানাবেন, এক্ষেত্রে সে যেই হউক তাকে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং থেকে

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *