নগরীর চান্দগাঁও কেবি আমান আলী রোডের বাসিন্দা আবুল হাসানের এই মামলায় তার স্ত্রী নাজমুন নাহার নাজুকেই একমাত্র আসামি করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম নাজমুল হোসেন চৌধুরী রোববার যৌতুক নিরোধ আইনে করা অভিযোগ আমলে নিয়ে নাজুর বিরুদ্ধে সমন জারি করেছেন বলে বাদীর আইনজীবী কংকন চন্দ্র দেব জানিয়েছেন।

তিনি  বলেন, “হাসানের স্ত্রী একটি ফ্ল্যাট কিনে দেয়ার জন্য স্বামীকে কয়েক বছর ধরে চাপ দিচ্ছিল। এজন্য স্ত্রী ১০ লাখ টাকা দাবি করে তাকে মারধর করে।এছাড়া স্বামীর প্রতি মাসের পুরো আয় তাকে দিয়ে দেওয়ার জন্যও চাপ প্রয়োগ করে আসছিল নাজু।”

গত প্রায় তিন বছর ধরে এসব ঘটনা চলছে জানিয়ে আইনজীবী কংকন বলেন, সর্বশেষ গত ১১ অগাস্ট ও ২৫ মার্চ নিজের বাসায় হাসানকে মারধর করে মানসিক ও শারীরিকভাবে কষ্ট দেয় তার স্ত্রী।

কয়েক বছর ধরে নিজেদের মধ্যে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করেও ফল না আসায় বাদী আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন বলে জানান তিনি।

২০১১ সালের ১৩ মে চান্দগাঁয়ের আবুল হাসানের সঙ্গে হালিশহর রামপুরা এলাকার নাজমুন নাহার নাজুর বিয়ে হয়। তাদের সাড়ে তিন বছরের একটি মেয়ে রয়েছে।

পেশায় থাই অ্যালুমিনিয়ামের মিস্ত্রি আবুল যৌতুক নিরোধ আইনের চারটি ধারায় এ মামলা করেছেন।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here