বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জে ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে আরো ৬ হাজার হেক্টর বানের পানিতে তলিয়ে গেছে

প্লাবিত হচ্ছে আরো নতুন নতুন এলাকা। গত ২৪ ঘন্টার ব্যবধানে হবিগঞ্জের বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জের হাওরে আরো ৬ হাজার ৩শ ৮০ হেক্টর জমির ধান বানের পানিতে তলিয়ে গেছে। তন্মধ্যে বানিয়াচং হাওরে ৫ হাজার ৪শ ৫০ হেক্টর এবং আজমিরীগঞ্জ হাওরে রয়েছে ৯শ ৩০ হেক্টর জমি। টানা বর্ষনে এবং উজান থেকে নেমে আসা পানির ¯্রােতে বাঁধ ভেঙ্গে বানিয়াচং ও আজমিরীগঞ্জ দু’উপজেলার  গত শুক্রবার পর্যন্ত মোট  ১৬  হাজার ৩শশ ২০ হেক্টর জমির ধান প্লাবিত হয়েছে। সরকারী হিসেবে দু’উপজেলায় এখন পর্যন্ত টাকার অঙ্কে ক্ষতির পরিমান দাঁিড়য়েছে প্রায় আড়াইশ কোটি টাকার উপরে।  বেসরকারী হিসেবে এ ক্ষতির পরিমান আরো বাড়বে বলে ধারনা করা হচ্ছে। বানিয়াচং কৃষি অফিসের তথ্য মতে গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত পর্যন্ত বানিয়াচং ১নং উত্তর পূর্ব ইউনিয়নের হোন্ডারবাটি, পুরানবন্দ, সুলকের বন, চিটারবন্দে তলিয়ে গেছে ৭শ ৫০ হেক্টর, ২নং উত্তর পশ্চিম ইউনিয়নের নলাইপুর, সিংগুয়া, জুনাইরাবন, কর্নপুর, যাত্রাদিঘী,সানখোলা, গঙ্গারজল, ধুমবন্দে তলিয়ে গেছে ৮শ ৫০ হেক্টর, ৩নং দক্ষিণ পূর্ব ইউনিয়নের তেলুকমা,মাগরী ও টেটুয়ামাটের ২শ হেক্টর, ৪নং দক্ষিন পশ্চিম ইউনিয়নের দলাইমুখ ও খইয়াজোড়াবন্দের ২শ হেক্টর, ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের করচা, আইড়িয়ামগুর ও দৌলতপুর হাওরে ৬শ ৫০ হেক্টর, ৬নং কাগাপাশা ইউনিয়নের লোহাজুড়ি, বাগহাতা, মকা ও হারুনীবন্দের ৭শ হেক্টর, ৭নং বড়ইউড়ি ইউনিয়নের চাকুয়া, হানপিয়া,ঘোরারচর,নোয়াবাদ, ধাইরেরবন, হিংগুয়া,হুগলিয়া,বেগাইবন, আকতিবিলবন্দের ৫শ ৫০ হেক্টর, ৮নং খাগাউড়া ইউনিয়নের গুনই, বাগজুড়,বারগাও,সন্দলপুরবন্দের ৫শ হেক্টর, ৯নং পুকড়া ইউনিয়নের বাহারীবন, কানিনা, নরইনা,বারচর, কান্দিনামাবন্দের ৫শ ৫০ হেক্টর, ১০নং সুবিদপুর ইউনিয়নের ভাটিপাড়া,নলুয়া,বাগহানী,চড়বন,নোয়াবন, আলমপুর, বাগজোড়বন্দের ৮শ হেক্টর, ১১নং মক্রমপুর ইউনিয়নের মক্রমপুর, রাহাবাদ, দক্ষিনপুর, বরকান্দিবন্দের ৪শ হেক্টর, ১২নং সুজাতপুর ইউনিয়নের ইকরাম, মধুপুর, বাল্লা ও সুজাতপুর হাওরের ১৪শ ৫০ হেক্টর , ১৩ নং মন্দরী ইউনিয়নের আগুয়া, কাওরাকান্দি, মন্দরী, সুনারামপুর, শ্রীরামপুর, টুপিয়াজুড়ি, উত্তর সাঙ্গর, জলিলপুর, দুলালপুর ওে রাজাপুরবন্দের ১৮শ হেক্টর, ১৪নং মুরাদপুর ইউনিয়নের মাটিকাটা, রায়পুর, মর্দনপুর, গানপুর ও ইসলামপুর, বিথঙ্গলবন্দের ৯শ হেক্টর, ১৫ নং পৈলারকান্দি ইউনিয়নের বসন্তপুর, কুমড়ী, পৈলারকান্দি, ,বাগতলা, নজরপুর, ডেঙ্গারখলা, আলমনগর ও বাগতলাবন্দের ১হাজার হেক্টর ধানী জমিতে ইতিমধ্যে তলিয়ে গেছে। এদিকে আজমিরীগঞ্জ উপজেলার কৃষি অফিসার মোঃ শরীফুল ইসলাম এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এ উপজেলায় এ বছর বোরো আবাদের লক্ষ্য মাত্রা ধরা হয়েছিল হয়েছিল ১৪ হাজার ৯শত ৫০ মেট্রিকটন তন্মধ্যে অকাল বন্যায় গতকাল শুক্রবার পর্যন্ত আজমিরীগঞ্জ পৌরসভাসহ আজমিরীগঞ্জের ৫টি ইউনিয়নে ৫ হাজার ২০ হেক্টর জমির ধান তলিয়ে গেছে।

বানিয়াচং এর উত্তরের হাওর পরিদর্শনে যাওয়া বানিয়াচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ বশির আহমদ ও প্যানেল চেয়ারম্যান ইকবাল বাহার খান এর সাথে আলাপকালে তারা বলেন কৃষি অফিসের মাধ্যমে ক্ষতি গ্রস্ত কৃষকদের তালিকা করা হচ্ছে।

মখলিছ মিয়া, বানিয়াচং (হবিগঞ্জ)

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *