কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের জন্ম

ইতিহাস আজীবন কথা বলে। ইতিহাস মানুষকে ভাবায়, তাড়িত করে। প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা কালক্রমে রূপ নেয় ইতিহাসে। সে সব ঘটনাই ইতিহাসে স্থান পায়, যা কিছু ভালো, যা কিছু প্রথম, যা কিছু মানবসভ্যতার অভিশাপআশীর্বাদ

তাই ইতিহাসের দিনপঞ্জি মানুষের কাছে সবসময় গুরুত্ব বহন করে। এই গুরুত্বের কথা মাথায় রেখে পাঠকদের জন্য নিয়মিত আয়োজনইতিহাসের এই দিন

২৫ নভেম্বর, ২০১৮, রোববার। ১১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ। এক নজরে দেখে নিন ইতিহাসের দিনে ঘটে যাওয়া উল্লেখযোগ্য ঘটনা, বিশিষ্টজনের জন্মমৃত্যুদিনসহ গুরুত্বপূর্ণ আরও কিছু বিষয়

ঘটনা
১৫৩৮পর্তুগিজ নৌবাহিনী ভারত থেকে নৌসেনাদের সরিয়ে নিয়ে যায়।
১৮১৩জেনারেল হেস্টিংসের উপস্থিতিতে কলকাতার বিখ্যাত চৌরঙ্গী থিয়েটারের উদ্বোধন হয়।
১৮৭৫ব্রিটেন মিশরে খতিবের কাছ থেকে সুয়েজ খালের ৪৪ শতাংশ মালিকানা কিনে নেয়।
১৯৩৬জার্মানি জাপান কমিউনিস্ট ইন্টারন্যাশনালবিরোধী চুক্তি স্বাক্ষর করে।
১৯৯১খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন

জন্ম
১৮৯৮ভারতীয় অভিনেতা, পরিচালক চিত্রনাট্যকার দেবকী বসু।
১৯১৫অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার রন হামেন্স।
১৯৩৩কবি শক্তি চট্টোপাধ্যায়

শক্তি চট্টোপাধ্যায় জীবনানন্দউত্তর যুগের বাংলা সাহিত্যের একজন প্রধান আধুনিক কবি। বাঙালিভারতীয় এই কবি বিংশ শতাব্দীর শেষ ভাগে বিশেষভাবে পরিচিত এবং আলোচিত হন। তার জন্ম নভেম্বর ২৫, ১৯৩৪ সাল। আর মার্চ ২৩, ১৯৯৫তে তিনি চলে যান না ফেরার দেশে

তার অনেকগুলো কবিতার বই থেকে কয়েকটি হলো প্রেম হে নৈঃশব্দ্য (১৯৬২), ধর্মে আছো জিরাফেও আছো (১৯৬৭), সোণার মাছি খুন করেছি (১৯৬৮), অন্ধকার নক্ষত্রবীথি তুমি অন্ধকার (১৯৬৮), হেমন্তের অরণ্যে আমি পোস্টম্যান (১৯৬৯), চতুর্দশপদী কবিতাবলী (১৯৭০), পাড়ের কাঁথা মাটির বাড়ি (১৯৭১), প্রভু নষ্ট হয়ে যাই (১৯৭২), সুখে আছি (১৯৭৪), ঈশ্বর থাকেন জলে (১৯৭৫), যেতে পারি কিন্তু কেনো যাবো (১৯৮৩)

মৃত্যু
১৯১১ফরাসি মার্কসবাদী নেতা পল লাফাগ।
১৯৫০নোবেলজয়ী ডেনিশ সাহিত্যিক যোহন্নেস ডিলহেলম ইয়েনসেন।
১৯৭০জাপানি ঔপন্যাসিক নাট্যকার ইউকিও মিশিমা।
১৯৯৮মার্কিন রম্য অভিনেতা ফ্লিপ উইলসন

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *