২০১৮ সালে মোট হত্যাকান্ডের সংখ্যা ২৪৫০ জন : বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন

২০১৮ সালে মোট হত্যাকান্ডের সংখ্যা ২৪৫০ জন

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন-BHRC’র বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও পৌরসভার শাখা থেকে প্রাপ্ত তথ্য এবং বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে BHRC’র ডকুমেন্টেশন বিভাগ অনুসন্ধান এবং ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যান রাইটস কমিশন-IHRC’র সহযোগিতায় প্রতিবেদন সম্পন্ন করে। জরিপে ২০১৮ সালে সারা দেশে মোট হত্যাকান্ড সংঘটিত হয় ২৪৫০টি। এ ধরনের হত্যাকান্ড অবশ্যই আইন শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি। BHRC এই হত্যাকান্ডের হার ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। ২০১৮ সালে গড়ে প্রতিদিন হত্যাকান্ড ঘটে প্রায় ৭টি। আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সরকারের সংশ্লিষ্ট দায়িত্বপ্রাপ্ত বিভাগের কর্মকর্তাদের অবশ্যই অধিক দায়িত্ববান হতে হবে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার গতিশীল কার্যক্রমের মাধ্যমে হত্যাকান্ড কমিয়ে শুন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা সম্ভব। বাংলাদেশের গণতন্ত্র ব্যবস্থাপনাকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপদান এবং মানবাধিকার সম্মত সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হলে অবশ্যই সর্বস্তরে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা প্রয়োজন। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমেই কেবলমাত্র এ ধরণের ক্রমবর্ধমান হত্যাকান্ড হ্রাস করা সম্ভব। সম্প্রতি শিশু নির্যাতন ও হত্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্ধেগ ও এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করতে সরকার ও আইন শৃংখলা বাহিনীর কাছে জোর দাবি জানিয়েছেন।
বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের ডকুমেন্টেশন বিভাগের জরিপে দেখা যায়-
২০১৮ সালে হত্যাকান্ডের শিকার ————————————————– ২৪৫০ জন।

এর মধ্যে
০১। যৌতুকের কারণে হত্যা —————————————————————- ৫৩ জন।
০২। পারিবারিক সহিংসতায় হত্যা———————————————————— ৩২৩ জন।
০৩। সামাজিক সহিংসতায় হত্যা ————————————————————  ৬২৫ জন।
০৪। রাজনৈতিক কারণে হত্যা ————————————————————— ৮০ জন।
০৫। আইন শৃংখলা বাহিনীর হাতে হত্যা —————————————————— ৪৪৭ জন।
০৬। বিএসএফ কর্তৃক হত্যা  —————————————————————- ৩৪ জন।
০৭। চিকিৎসকের অবহেলায় মৃত্যু ———————————————————— ৫৩ জন।
০৬। অপহরণ হত্যা————————————————————————- ৯৪ জন।
০৭। গুপ্ত হত্যা  —————————————————————————- ৯১ জন।
০৮। রহস্যজনক মৃত্যু ——————————————————————— ৫৮৪ জন।
০৯। ধর্ষণের পর হত্যা ——————————————————————— ৫৮ জন।
১০। নির্বাচনী সহিংসতায় ——————————————————————- ২২ জন।
১১। এসিড নিক্ষেপে হত্যা —————————————————————— ০৩ জন।
১২। সাংবাদিক হত্যা ———————————————————————– ০১ জন।

বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহত –
ক) পরিবহন দুর্ঘটনায় মৃত্যু ————————————————————— ২৯২৩ জন।
খ) আত্মহত্যা —————————————————————————- ২৬১ জন।

ডিসেম্বর ২০১৮ সালে কতিপয় নির্যাতনের উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলী –
ক) ধর্ষণ———————————————————————————- ২৯৬ জন।
খ) যৌন নির্যাতন————————————————————————– ১২৭ জন।
গ) যৌতুক নির্যাতন————————————————————————- ৬১ জন।
ঘ) সাংবাদিক নির্যাতন ———————————————————————- ৩০ জন।
ঙ) এসিড নিক্ষেপের শিকার —————————————————————— ৭ জন।

সংবাদ  বিজ্ঞপ্তি

জাহানারা আক্তার
সহকারী পরিচালক- গবেষণা ও জনসংযোগ

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *