সাংবাদিক খোকন হবিগঞ্জ জেলায় শ্রেষ্ট সভাপতি নির্বাচিত

নিজস্ব প্রতিনিধি॥ হবিগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ট ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক, বানিয়াচং প্রেসক্লাব সভাপতি ও মীরমহল্লা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মাবতাবাদী সাংবাদিক এস এম খোকন। জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবির মুরাদ এ ঘোষনা প্রদান করেন।

জাতীয় শিক্ষা পদক ২০১৮ উপলক্ষে ২৭ সেপ্টেম্বর জেলার সকল উপজেলার শ্রেষ্ট সভাপতিদের স্বাক্ষাৎকার গ্রহন করা হয়েছিল। এর পূর্বে গত ১৯ সেপ্টেম্বর আনুষ্ঠানিকভাবে বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুন খন্দকার শ্রেষ্ট ম্যানেজিং কমিটির ক্যাটাগরিতে এস এম খোকনকে বানিয়াচং উপজেলার শ্রেষ্ট ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হিসেবে নাম ঘোষনা করেন।

আগামী ৮ অক্টোবর বিভাগীয় পর্য্যায়ে সিলেট বিভাগীয় কমিশনারের কার্য্যালয়ে শ্রেষ্টত্বের লড়াইয়ে ৪ জেলার ৪জন শ্রেষ্ট ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মুখোমুখি হবেন। বিভাগীয় পর্য্যায়ে শ্রেষ্ট সভাপতি পরবর্তীতে জাতীয় পর্য্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করবেন।

সাংবাদিক এস এম খোকন হবিগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ট ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন, বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ সাখাওয়াত হাসান জীবন, বানিয়াচং উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুন খন্দকার, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার আব্দুর রাজ্জাক, বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন হবিগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি মানবতাবাদী সাংবাদিক হারুনুর রশিদ চৌধুরী, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও জনতার এক্সপ্রেস পত্রিকার সম্পাদক ফজলুর রহমান, হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও বাংলা ভিশনের জেলা প্রতিনিধি মোহাম্মদ নাহিজ, বানিয়াচং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা কাওছার শুকুরানা, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ছাইফুল আলম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্লাবন পাল, বিএসডি মহিলা মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল মোবাশ্বির আহমদ, বানিয়াচং আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পারভীন আক্তার খানম, বানিয়াচং উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার হাসিবুল ইসলাম, উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি ও রত্না উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক এম এ তাহের, হবিগঞ্জ জেলা প্রাইমারী প্রধান শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক অরুণ কুমার দাশ, বানিয়াচং প্রধান শিক্ষক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল আলমসহ সাংবাদিক শিক্ষক নেতা ও জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের শিক্ষক বৃন্দ।

print

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *